সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০, ০৭:১৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম
ধর্ষকদের হাত থেকে বাঁচতে লঞ্চ থেকে তরুণী’র মেঘনায় ঝাঁপ একনেকে ২৭৪৪ কোটি টাকার ৯ প্রকল্প অনুমোদন টাইগারদের মাঠে ফেরাতে দেশের আটটি ভেন্যু প্রস্তুত করেছে বিসিবি নগরকান্দার লস্করদিয়া কালীবাড়ী বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড নগরকান্দায় আইফার পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ ফরিদপুরের শ্রমিকদের কল্যানে নিবেদিত প্রাণ গোলাম মোঃ নাছির সালথায় এক গাঁজা চাষী আটক! খুলনা মহানগর বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জুর সহধর্মিণীর সুস্থতা কমনায় লন্ডনে দোয়া ও আলোচনা সভা। সালথায় “আমার রক্তে বাঁচুক প্রান” সেচ্ছায় রক্তদান সংগঠনের আত্মপ্রকাশ ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের নগরকান্দার বাঁশাগাড়ি-ভবুকদিয়া দেড় কিলোমিটার সড়ক সংস্কারে ধীরগতি স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে এলাকাবাসী ও পথচারী

বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবীত একজন মানুষ বঙ্গবন্ধু কৃষি পদকপ্রাপ্ত কৃষি গবেষক শাহদাব আকবর চৌধুরী

ডেস্ক রিপোর্ট / ৪৪৪ বার পঠিত
প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২০

 

মানব সেবা বা জনগণ কে সেবাদান মানবজাতি রক্ষার কবজ। আর মানুষ বা অনুসারীরা নেতার গোত্রের নেতার থেকে সর্বদা সেই সেবা প্রত্যাশা করে। যে নেতা যত বেশি সেবা দেন তিনি সবার প্রিয় থাকেন এটাই নিয়ম। আজ বঙ্গবন্ধু বেঁচে নেই কিন্তু তার সে মানব সেবার কথা মানুষ মনে রেখেছে। রাত নেই দিন নেই মানুষের সেবা করে গেছেন প্রতিনিয়ত। রাষ্ট্রীয় কাজ বা রাজনৈতিক কাজ সেরে বঙ্গবন্ধু যখন বাসায় ফিরতেন তখন ও মানুষ বাসায় অপেক্ষা করতো বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে, সেখানে নেতা কর্মী, সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে এম পি , মন্ত্রী সবাই থাকতো। বাসায় বলা ছিল কেউ যেন খালি মুখে না ফেরে আর মা ফজিলাতুনন্নেসা মুজিব তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করতেন। অনেক সময় তিনি না খেয়ে দূর দুরান্ত থেকে আসা মেহমানদের খাওয়াতেন। বঙ্গবন্ধু অনেক রাত পর্যন্ত সবার কথা শুনতেন এবং এমনকি জিজ্ঞেস করতেন আর কেউ আছে কিছু বলবে ? দেখা যেত তখন প্রায় ভোর হয়ে গেছে। এটাই বঙ্গবন্ধু! সারাটা জীবন মানুষের জন্য দিয়ে গেছেন।

এজন্য তিনি বাঙালি জাতির পিতা, অনন্য নেতা, তিনি না থাকলে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ পেতাম না, পেতাম না কোনো প্রতিষ্ঠিত অধিকার! আজ বঙ্গবন্ধু বেঁচে নেই কিন্তু তিনি বেঁচে আছেন এদেশের কোটি মানুষের হৃদয়ে। তার আদর্শ পালন করছেন হাজার হাজার নেতা কর্মী ও সাধারণ মানুষ! বঙ্গবন্ধুর মৃত্যু হয়নি, তিনি বেঁচে আছেন শতকোটি বাঙ্গালীর হৃদয়ে। তার আদর্শ বাস্তবায়নে যারা কাজ করছেন তার মধ্যে সর্বাগ্রে যার অবস্থান তিনি আমাদের প্রিয় নেত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনা, তিনি সবসময় দেশের কথা ভেবেই কাজ করে চলেছেন। এ দেশের উন্নয়নের কথা তিনি যা ভাবেন তা তিনি বাস্তবে রূপ দিতে পেরেছেন তা সহজেই অনুমেয় বাংলাদেশর বর্তমান অবস্থান দেখে। তাঁর অক্লান্ত পরিশ্রম আর সুনিপন রাষ্ট্রপরিচালনার দক্ষতায় বাংলাদেশ ইতোমধ্যে অর্থনীতি, রাজনীতি, উন্নয়ন ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় অনেক উচ্চতায় অধিষ্ঠিত হয়েছে যা ভবিষ্যতে উত্তরোত্তর বৃদ্ধিই পাবে। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ যে এগিয়ে যাচ্ছে সেখানে কোনো সন্দেহ নেই। তিনি যে বিশ্ব নন্দিত বিশ্ব নেত্রী তিনি ইতোমধ্যে তা বিশ্ব রাজনীতিতে প্রমান করেছেন। তিনি এখন বিশ্বের শীর্ষনেতাদের একজন।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অনুসরণ করার মতো অনেকেই হয়তো আছেন কিন্তু একজন ব্যক্তি আছেন যিনি প্রচার বিমূখ, সৎ, পরিশ্রমী এবং নিষ্ঠাবান। নীরবে কাজ করে যাচ্ছেন, তিনি হলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য ফরিদপুর ২ নগরকান্দা -সালথা আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের সংসদ উপনেতা সৈয়দ সাজেদা চৌধুরীর এম’পি এর কনিষ্ঠপুত্র ও তার রাজনৈতিক প্রতিনিধি
বঙ্গবন্ধু কৃষি পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট কৃষি গবেষক শাহদাব আকবর চৌধুরী (লাবু)

তিনি নিরলস শ্রমের মাধ্যমে নগরকান্দা -সালথার প্রতিটি ইউনিয়ন ও গ্রাম এবং বাড়ির আঙ্গিনায় তিনি নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক চেতনা ধারণকারী জনকল্যাণকামী একজন নেতা হিসেবে। তারপরেও সবসময় থাকের প্রচারবিমূখ।
শান্ত-নম্র অথচ দৃঢ়চেতা মনোভাবের এক মূর্তপ্রতীক, যিনি সময়কে প্রভাবিত করতে পেরেছেন আপন কীর্তি দ্বারা। পরিশ্রমী ও পরিচ্ছন্ন মুজিব আদর্শের সৈনিক হিসাবে। সে এখন নগরকান্দা সালথা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন এর জনপ্রিয় নেতা।
ছোট বেলা থেকে মা (সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী) হাত ধরে রাজনীতিতে আসেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে বুকে ধারণ করে রাজনীতির সিঁডিতে পা রাখেন। এগিয়ে যান নেতাকর্মীদের ভালোবাসা আন্তরিকতা আর সহযোগিতা নিয়ে। নগরকান্দা সালথা এর জনগনের বিভিন্ন ন্যায্য দাবি আদায়ের আন্দোলন-সংগ্রামে অগ্রভাগে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন এই নেতা সাধারণ জনগনের ভালোবাসায় রাজপথের এই লড়াকু যোদ্ধা দিনে দিনে নগরকান্দা সালথা আওয়ামীলীগের প্রতিটা কর্মীর কাছে হয়ে উঠেছেন অসাধারণ ও নির্ভরযোগ্য এক মুজিব আদর্শের পথিকৃৎ।

লেখকঃ নিজাম নকিব

সম্পাদক ও প্রকাশক

দৈনিক সকালের সুর্যোদয়।

মোবাঃ ০১৭১৩৬৪১৫৯৯

জি-মেইল nezam.nokib@gmail.com


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
এক ক্লিকে বিভাগের খবর