সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০, ০৬:৪৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম
ধর্ষকদের হাত থেকে বাঁচতে লঞ্চ থেকে তরুণী’র মেঘনায় ঝাঁপ একনেকে ২৭৪৪ কোটি টাকার ৯ প্রকল্প অনুমোদন টাইগারদের মাঠে ফেরাতে দেশের আটটি ভেন্যু প্রস্তুত করেছে বিসিবি নগরকান্দার লস্করদিয়া কালীবাড়ী বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড নগরকান্দায় আইফার পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ ফরিদপুরের শ্রমিকদের কল্যানে নিবেদিত প্রাণ গোলাম মোঃ নাছির সালথায় এক গাঁজা চাষী আটক! খুলনা মহানগর বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জুর সহধর্মিণীর সুস্থতা কমনায় লন্ডনে দোয়া ও আলোচনা সভা। সালথায় “আমার রক্তে বাঁচুক প্রান” সেচ্ছায় রক্তদান সংগঠনের আত্মপ্রকাশ ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের নগরকান্দার বাঁশাগাড়ি-ভবুকদিয়া দেড় কিলোমিটার সড়ক সংস্কারে ধীরগতি স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে এলাকাবাসী ও পথচারী

ফরিদপুরের শ্রমিকদের কল্যানে নিবেদিত প্রাণ গোলাম মোঃ নাছির

ডেস্ক রিপোর্ট / ৯০ বার পঠিত
প্রকাশিত: সোমবার, ২২ জুন, ২০২০

 

নিজস্ব প্রতিনিধি :
ফরিদপুরের শ্রমিকদের কল্যানে নিবেদিত প্রাণ গোলাম মো, নাছির। যেখানে অন্যায় অবিচার সেখানেই প্রতিবাদি নাছির। ২৫ বছর ধরে শ্রমিকদের পাশে থেকে কাজ করছে এ নেতা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে জেলায় শক্তিশালী করতে আজীবন কাজ করার ইচ্ছা পোষন করেন শ্রমিকের এ নেতা।
জানা গেছে. নাছির নগরকান্দা উপজেলার ঐতিহ্যবাহী মিয়া পরিবারের সন্তান। দাদা মৌলভি আবুল হামিদ মিয়া নগরকান্দা ইউনিয়ন পরিষদের ২৫ বছর ধরে বোড চেয়ারম্যান ছিল। চাচা সোবহান মিয়া নগরকান্দা ইউনিয়নের একাধিক বারের চেয়ারম্যান। চাচাতো ভাই সাহেব মিয়া নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক পৌর চেয়ারম্যান।
বড় ভাই এবিএম সফিউল আলম বুলু নগরকান্দা ও ভাঙ্গা কলেজের সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফরিদপুর জেলা ছাত্রলীগ, বাংলাদেশ জনতা ব্যাংকের সিবিএর সাবেক সভাপতি, ঢাকা দক্ষিনের সাবেক সহ-সভাপতি ও বর্তমানে সভাপতির দায়িত্বে রয়েছে। বুলুর বড় ছেলে ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত ও ঢাকা দক্ষিনের ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। ছোট ছেলে মাধ্যমিকে লেখাপড়া করছে।
মেঝো ভাই মৃত এটিএম সৈয়েদুল আলম তপন ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয় থেকে ইংরেজি বিভাগে মাষ্টার্স। তিনি ছিলেন যুগ্ম সভাপতি নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামীলীগ, বাংলাদেশ জাতীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক, ফরিদপুর জেলা আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক। যা এখনো চলমান রয়েছে। তার স্ত্রী রেবেকা ফরিদপুরের জনতা ব্যাংকের অফিসার, ছেলে আরাফাত আলম অপু মেরিন ইঞ্জিনিয়ার, মেয়ে আফিয়া এমবিএস ডাক্তার।
বড় বোন মাহমুদা বেগম নগরকান্দা গোয়ালপোতা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষীকার পাশাপাশি সরকারী শিক্ষক সমিতির ইউনিয়নের সভাপতি ছিলেন। মেঝো বোন গৃহিনী, ছোট বোন উচ্চ শিক্ষিত, ছোট ভাই রাজবাড়ি জেলার গোয়ালন্দ শাখা সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার। তার স্ত্রী সালমা ফরিদপুরের রুপালী ব্যাংকের অফিসার।
নগরকান্দার মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান নাছির। তার দুই ছেলের মধ্যে বড় ছেলে গোলাম তাকসির স্বরণ ঢাকা রেসিডেন্টশিয়াল মডেল স্কুল থেকে মেধা তালিকায় পাশ করে এখন রাজেন্দ্র কলেজে পড়ছে। ছোট ছেলে একটি বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত।
নাছিরের শ্রমিক রাজনীতি ২৪ বছর আগে কুলি শ্রমিক সংগঠনের মধ্য দিয়ে। এখানে দুই বার দায়িত্ব পালন করে পরবর্তিতে দুই বার জেলা রেন্ট-এ-কার শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছে। বর্তমানে ফরিদপুর মটর ওয়ার্কাস ইউনিয়নের (রেজিঃ ১০৫৫) ১৬ বছর ধরে নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক। এ ছাড়াও তিনি বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক, নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক, জেলা শ্রমিকলীগের যুগ্ম সম্পাদক, ২১টি ব্যাসিক সংগঠনের জেলা শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদকের পদে আছেন।
দীর্ঘ পথ চলায় বহু ঘাত প্রতিঘাত সইতে হয়েছে তাকে। শ্রমিকের বিপদে প্রতিবাদি ভুমিকা আর শ্রমিকদের কল্যানে প্রসংশনীয় ভুমিকার কারনে সকল বাধা বিপত্তি পেরিয়ে স্বস্থানেই রয়েছে বীর দর্পে। বৈশিক মহামারি করোনাকালে সব সময় সকলের পাশে থেকেছেন নাছির। দিয়েছেন নগত অর্থ, চাল এমনকি বাসষ্ট্যান্ড এলাকার বেকার শ্রমিকদেরকে দিনের পন দিন খাদ্রের ব্যবস্থা করেছেন। শ্রমিকদের বিপদ শুনলেই তার বাড়ি কিংবা হাসপাতাল বা যে কোন সহযোগীতা হাত ফেরান নাই এ শ্রমিক নেতা। এ ছাড়াও করোনা কালে গোয়ালচামট ১২ নং ওয়ার্ডের সকল দরিদ্র পরিবারকে সহযোগীতার পাশাপাশি বিভিন্ন মসজিদের উন্নয়নে পাশে থেকেছেন।
প্রতিবেদকের সাথে কথা হলে গোলাম মো, নাছির বলেন, আমি শ্রমিকের কল্যানে কাজ করতে চাই। শ্রমিকদের বিপদে-আপদে তাদের পাশে থাকতে চাই। দেশে ঘটে যাওয়া জামাত-শিবিরের নৈরাজ্যে আমি জেলার আওয়ামীলীগের নেতৃস্থানীয় নেতাদের সাথে থেকে বিশেষ ভুমিকা রেখেছি। আমার আশা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে জেলার সকল শ্রমিকদেরকে ঐক্যবদ্ধ করে আওয়ামীলীগের সকল আন্দোলনে পূর্বের ন্যায় ভুমিকা রাখতে সেই সাথে সব সময় শ্রমিক কল্যানে কাজ করে যেতে চাই জীবনের শেষ মুহুত্ব পর্যন্ত।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
এক ক্লিকে বিভাগের খবর