শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:২৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম
নগরকান্দায় অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীদের পাশে মেয়র প্রার্থী কামরুজ্জামান (মিঠু) আসন্ন মুন্ডুমালা পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে আলোচনার শীর্ষে আ’লীগ নেতা সাইদুর রহমান নগরকান্দায় গৃহবধুর লাশ উদ্ধার নগরকান্দায় শ্বশুর ও শ্যালককে হত্যার হুমকি, শ্বশুরের থানায় অভিযোগ মিরাকান্দা পুর্বপাড়া মসজিদ নির্মাণে ২৫ ব্যাগ সিমেন্ট দিলেন সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী মোঃ মিঠু নগরকান্দার সেই মুক্তিযোদ্ধার পাশে দাঁড়ালেন উপজেলা প্রশাসন দৈনিক সমকাল পত্রিকার সালথা প্রতিনিধি সাইফুলের দাদীর ইন্তেকাল সংবাদ প্রকাশের পর সেই অসহায় মুক্তিযোদ্ধার পাশে এ্যাডঃ জামাল হোসেন মিয়া সালথায় বিদ্যুৎতের তারে জড়িয়ে স্বামী -স্ত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু সালথায় বৃদ্ধকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী-কন্যা আটক

নগরকান্দায় ১৫ কেজি চালের পরিবর্তে দেয়া হচ্ছে ১০ কেজি করে

ডেস্ক রিপোর্ট / ১১৯ বার পঠিত
প্রকাশিত: রবিবার, ৫ এপ্রিল, ২০২০

করোনা ভাইরাসের পাদুর্ভাবজনিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় হতদরিদ্র ও অসহায় ব্যক্তিদের জন্য সরকারী তরফ থেকে জিআর চাল বরাদ্দ দেয়া হয় ফরিদপুরের বিভিন্ন উপজেলায়। সরকারী নির্দেশনা মতে ফরিদপুর সদর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে হতদরিদ্র পরিবারের প্রত্যেককে ১৫ কেজি করে চাল দেয়া হলেও ব্যতিক্রম শুধু নগরকান্দা উপজেলাতে। এ উপজেলায় ৯টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার জন্য মোট চাল বরাদ্দ দেয়া হয় ২২ হাজার মেট্রিক টন। যা দেয়া হবার কথা ১ হাজার ৪শ ৬৭টি পরিবারের মাঝে। কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নগরকান্দা উপজেলার সব কয়টি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় চাল বিতরন করা হয়েছে প্রত্যেককে ১০ কেজি করে। উপকারভোগীদের মধ্যে চরযশোরদী ইউনিয়নে ২২১ জনের বিপরীতে চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৩ হাজার ৩শ ১৫ মেট্রিক টন। পুরাপাড়া ইউনিয়নে ১১৩ জনের বিপরীতে দেয়া হয়েছে ১ হাজার ৬শ ৯৫ মেট্রিক টন। শহীদনগর ইউনিয়নে ১১০ জনের বিপরীতে দেয়া হয়েছে ১ হাজার ৬শ ৫০ মেট্রিক টন। ফুলসূতি ইউনিয়নে ৭০ জনের বিপরীতে দেয়া হয়েছে ১ হাজার ৫০ মেট্রিক টন। কাইচাইল ইউনিয়নে ১২১ জনের বিপরীতে দেয়া হয়েছে ১ হাজার ৮শ ১৫ মেট্রিক টন। তালমা ইউনিয়নে ২১৮ জনের বিপরীতে দেয়া হয়েছে ৩ হাজার ২শ ৭০ মেট্রিক টন। রামনগর ইউনিয়নে ১৪৮ জনের বিপরীতে দেয়া হয়েছে ২ হাজার ২শ ২০ মেট্রিক টন। ডাঙ্গী ইউনিয়নে ১৬৩ জনের বিপরীতে দেয়া হয়েছে ২ হাজার ৪শ ৪৫ মেট্রিক টন। লস্করদিয়া ইউনিয়নে ১৬৯ জনের বিপরীতে দেয়া হয়েছে ২ হাজার ৫শ ৩৫ মেট্রিক টন। নগরকান্দা পৌরসভায় ১৩৪ জনের বিপরীতে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ২ হাজার ৫ মেট্রিক টন। সরকারী প্রজ্ঞাপণ অনুযায়ী প্রতিটি পরিবারকে ১৫ কেজি করে চাল দেবার নির্দেশনা দেয়া হয়। কিন্তু নগরকান্দা উপজেলার কোন ইউনিয়নেই তা মানা হয়নি। জানা গেছে, যাদের উপরকারভোগী হিসাবে চিহিৃত করা হয়েছে তাদের বাইরে যাদের চাল দেয়া হয়েছে তারা অনেকেই এ দূর্যোগকালীন মুহুর্তে চাল পাবার যোগ্য নন। শুধুমাত্র চেয়ারম্যান-মেম্বারদের কাছের লোক হিসাবে কিংবা রাজনৈতিক কারনে অনেকেই তালিকায় নাম না থাকলেও চাল পেয়েছেন বলে জানা গেছে। ১৫ কেজির স্থলে ১০ কেজি করে চাল পাওয়ায় তালিকাভুক্ত অনেকেই হতাশা ব্যক্ত করে বলেছেন, ১০ কেজি করে চাল দিয়ে বাকি ৫ কেজি চাল কাদের দেয়া হয়েছে তা খতিয়ে দেখা দরকার।
পুড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুস সোবহান জানান, সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক প্রত্যেককে ১৫ কেজি করে চাল দেবার কথা বলা হলেও উপজেলা অফিস থেকে মৌখিক নির্দেশনা দেয়া হয়ে ১০ কেজি করে দেবার। যার কারনে আমরা প্রত্যেককে ১০ কেজি করে চাল দিয়েছি। ফলে উপকারভোগীদের সংখ্যা বেড়েছে।
এ বিষয়ে নগরকান্দা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ইকবাল কবির বলেন, ১৫ কেজি করে চাল দিতে হবে এমন কোন পরিপত্র আমার কাছে নেই। উপজেলা মিটিংয়ের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ১০ কেজি করে চাল দেয়া হচ্ছে। তাছাড়া জেলা খাদ্য কর্মকর্তাও ১০ কেজি করে চাল দেবার কথা বলেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
এক ক্লিকে বিভাগের খবর